google verifie

লাইফ টাইম অনলাইনে টাকা ইনকাম করার বেষ্ট উপায়। Make Money Online from Home

Make Money Online from Home

বাংলাদেশ থেকে অনলাইনে কাজ করে টাকা ইনকাম করার মত শত শত উপায় রয়েছে।কিন্তু সব জায়গায় সবার পক্ষে সফল হওয়া সম্ভব হয় না।কিন্তু অনলাইনে কাজ করার মত কিছু জায়গা রয়েছে যেই জায়গা গুলুতে ঠিক মত কিছুদিন কাজ করলেই খুব তারাতারি সফল হতে পারবেন।এবং এই কাজ গুলু চেষ্টা করলে সবাই পারবে।আর আমি যেই কাজ গুলুর কথা বলব অনলাইনে সেই কাজ গুলু করার জন্য দামি মোবাইল বা লেপটপের প্রয়োজন হয় না। আপনার কাছে একটা মুটামুটি ভালো মোবাইল থাকলেই এই কাজ গুলু আপনি করতে পারবেন।

১.অনলাইনে ইউটিউবে কাজ করে টাকা ইনকাম।


বর্তমানে অনলাইনে কাজ করে খুব তারাতাড়ি সফল হতে পারবেন ইউটিবের মাধ্যমে। ইউটিউবে কাজ করতে হলে আপনাকে কোনো না কোনো কাজ জানতে হবে।আপনি যেকোনো ধরনের ভিডিও ইউটিউবে আপলোড করতে পারেন। আপনি যেই কাজটা ভালো পারেন সেই কাজটা নিয়েই ইউটিউবে কাজ শুরু করবেন। ইউটিউবে কাজ করার জন্য কিছু নিয়ম কানন রয়েছে সেই গুলু মেনে যদি আপনি রেগুলার ইউটিবে ভিডিও আপলোড করতে পারেন তাহলে আপনি খুব তারাতাড়ি ইউটিউবে সফল হতে পারবেন।ইউটিউবে যখন আপনার ভিডিও সব গুলু মিলে মানুষ ৪ হাজার ঘন্টা দেখবে এবং আপনার ১ হাজার সাবস্ক্রাইবার/ফলোয়ার হবে তখন থেকে আপনি ইনকাম করতে পারবেন।


২.শাটারস্টক থেকে টাকা ইনকাম করার উপায়। 

ছবি বিক্রি করে টাকা আয় করার উপায়


যারা জানেন না শাটারস্টক কি তাদের জন্য বলে নেই শাটারস্টক হচ্ছে ফটো ও ভিডিও ক্রয় বিক্রয় করার একটি সাইট।আপনি যদি খুব ভালো পিক তুলতে পারেন তাহলে আপনি Shutterstock থেকে প্রতি মাসে ছবি বিক্রি করে খুব ভালো পরিমান টাকা ইনকাম করতে পারবেন।ছবি ও ভিডিও  সেল করার জন্য অনলাইনে আরো শত শত ওয়েবসাইট রয়েছে।কিন্তু ঐ গুলুর থেকে শাটারস্টকে ছবি সেল হয় বেশি।

৩. ব্লগিং করে অনলাইনে মোবাইল দিয়ে ইনকাম।


আপনি যদি লেখালেখি করতে ভালোলাগে তাহলে আপনি অনলাইনে নিজের একটা ওয়েবসাইট তৈরী করে টাকা ইনকাম কতে পারেন।আপনার যদি একটি ব্লগ থাকে তাহলে আপনি অনেক ভাবেই টাকা ইনকাম করতে পারেন।বর্তমানে ওয়েবসাইট তৈরী করার জন্যে কোনো কোডিং শিখতে হয় না। blogger, wordpress, wix এই গুলু দিয়ে আপনি যেকোনো ধরনের ওয়েবসাইট বানাতে পারবেন খুব সহজেই। 

৪.এফিলিয়েট মার্কেটিংএ অনলাইনে কাজ করে টাকা ইনকাম করার উপায়। 


সবার আগে জেনে নেই এফিলিয়েট মার্কেটিং কি এফিলিয়েট  হচ্ছে কোনো একটা দোকানের একটা পন্যে সম্পর্কে আপনার মাধ্যমে একজন কাষ্টমার বিস্তারিত জেনে  আপনার দেওয়া লিংকের মাধ্যমে একটা পন্যে যদি ক্রয় করে তাহলে সেই পন্যে বিক্রির টাকা থেকে আপনিও একটা কমিশন পাবেন।এফিলিয়েট  মার্কেটিং অনেক ভাবেই করা যায় যেমনঃ ফেইসবুক, টুইটার, ইনস্টাগ্রাম, ইউটিউব ও ব্লগিং করে।

অনলাইনে কাজ করে মোবাইল দিয়ে টাকা ইনকাম করার উপায়।

আপনি যদি সত্যিই অনলাইনে কাজ করে ইনকাম করতে চান। তাহলে আপনাকে অনলাইনে যেকোনো একটা বিষয় নিয়ে কাজ শুরু করতে হবে।এবং কাজ শুরু করার সাথে সাথেই ইনকাম করার চিনতা করবেন না।আপনি ইউটিব, ব্লগিং, এফিলিয়েট মার্কেটিং বা অন্য যেকোনো কাজ করার আগে আপনি একটু ভালোভাবে শিখে নেওয়ার চেষ্টা করবেন।আর অনলাইনে কাজ শেখার জন্য এখন কোনো কোচিং সেন্টারে যেতে হয় না। ঘরে বসে ইউটিব ও গুগুল থেকেই শেখা যায়।

Next Post Previous Post
No Comment
Add Comment
comment url