নতুন নতুন জামার গলার ডিজাইন কাটিং ও সেলাই।

নতুন নতুন জামার গলার ডিজাইন কাটিং ও সেলাই।


জামার কলার গলার ডিজাইন গুলুর ভিতরে এই গলাটা খুব সুন্দর একটা ডিজাইন।গলাটার ভিতরে পান গলা দিয়ে কলার দেওয়া হয়েছে। এই গলা গুলু যেকোনো ধরনের দামি ও কমদামি জামার ভিতরে ব্যবহার করা যায়। জামায় কলার সবাই দেয়না কারন যারা মোটা মানুষ তাদের কলার গলা জামা  পরতে সমস্যা হয়।জামায় কলার দিলে জামার গলা একটু বড় দিতে হয় না হলে জামা পড়তে সময় গলা দিয়ে মাথা ডুকাতে সমস্যা হয়।আর আপনি যদি জামার গলা ছোট দিতে চান তাহলে সামনে কাটা দিয়ে হোক বা টিপ বোতাম দিতে হবে।এই গলার সৌন্দর্য আরো বাড়াতে চাইলে কলার ও গলা সহ সামনে কোমর পর্যন্ত ফারা দিয়ে সালোয়ারের কাপরের পাইপিন দিয়ে দিতে পারেন।

কলার গলার মাপ।
কলার গলার সাধারনত মাপ দেওয়া হয় গলার চরানো ৬ ইঞ্চি ধরে নিচের দিকে ৭ ইঞ্চি নামানো। কলার দেওয়া গলায় এই মাপটা দিলে সামনে কোনো কাটা দিতে হবে না।এমনিতেই গলা দিয়ে মাথা ডুকবে।

জামার নরমাল গলা

এই গলা গুলু সাধারণত সুতি জামা ও সব সময় ব্যবহার করার মত জামা গুলুতে বেশি ব্যবহার করা হয়।কারন এই গলা গুলু জরজেট জামার ভিতরে  দিলে গলার কোনা গুলু ঠিক থাকে না এবং নিচের কোনার দিকে চিরে যায় ফেটে যায়।
জামার গোল গলার ডিজাইন

জামার গোল গলার ডিজাইন।
গোল গলা সব ধরনের জামার ভিতরে ব্যবহার যায়।যারা জামায় কোনো ডিজাইন ব্যবহার করে না তারা বেশির ভাগ গোল গলা ও স্কয়ার গলা জামা পড়ে।জামায় গোল গলা দুই ভাবে দেওয়া যায়। এক সামনে পিছনে সমান গোল গলা দেওয় যায়।দুই পিচনে উটানো গোল গলা দিয়ে সামনের দিকে নামানো গোল গলা দেওয়া যায়।সামনে পিচনে যদি গলার নামানো সমান দেয়া যায় তাহলে জামা দুই দিকেই পড়া যায়।এছারাও গলায় পাইপিন দিলে গলার সুন্দর্যটা অনেক বেড়ে যায়।গলায় পাইপিন দিলে গলা তৈরী করার সময়! সময় অনেক বেশি লাগে।

Post a Comment

0 Comments

Search This Blog