পঙ্গপাল মানে কি| Locust Swarm

পঙ্গপাল মানে কি| Locust Swarm
পঙ্গপাল
করোনা ভাইরাস & পঙ্গপাল
আসসালামু আলাইকুম।

বাংলাদেশে করোনা পরে সব থেকে বড় ক্ষতির মুখে পড়ছে বাংলাদেশ যার নাম পঙ্গপাল।

পঙ্গপাল হচ্ছে ঘাস ফড়িং এর মতই।কিন্তু ঘাস ফড়িং একা থাকে আর পঙ্গপাল দলবদ্ধ হয়ে চলে।ইংরেজিতে বলা হয় Locust.এদের দলকে বলা হয় Locust Swarm.এই পঙ্গপাল যখন এক থাকে তখন খুব নিরিহ ও অনেক শান্তসুষ্ট একটা প্রানী থাকে।কিন্তু যখন তারা দলবদ্ধ হয়ে চলে তখন তারা মহামারি আকার ধারণ করে।১০ লাখ পঙ্গপালের একটা দল এক দিনে ৩৫ হাজার মানুষের খাবার খেয়ে সাবার করে ফেলতে পারে।

অনেক ধর্মগ্রন্তেই এদের কথা বলা হয়েছে।পূথিবীর প্রানী জগতের সবচেয়ে বিষ্ময়কর আচরনের প্রানী পঙ্গপাল। পৃথিবীতে অন্য কোনো প্রানি এভাবে এত বড় দল বেধে নাটকিয় ভাবে ও এত দূত চলতে পারে না।এরা একা থাকা অবস্তায় এরা ফসলের তেমন কোনো ক্ষতি।তবে বিশেষ বিশেষ কিছু প্রকৃতিক পরিবেশে এরা মহামারি আকার ধারণ করে এবং বিরাট পরিবর্তন লক্ষ করা যায় তারপর তারা মারাত্মক ক্ষতিক্ষর পতঙ্গের পরিনত হয়।

পঙ্গপালের ভিডিও। 

পঙ্গপালে মস্তিষ্কের অনেক পরিবর্তনের কারনে তারা অতি দূত বহু সংখ্যক সন্তান প্রদান করে।এবং ধীরে ধীরে  সামান্য থেকে বিশাল দলে পরিনত হয়।পতঙ্গের সংখ্যা বেশি বৃদ্ধি পেলে এদের মাঝে উড়ে বেড়ানোর সাধ জাগে।তখন তারা খাদ্য শস্যর গন্ধ শুঁখে এরা নতুন নতুন খাবার খুজে বের করে।যতখন কোনে এলাকায় খাদ্য শস্য আছে ততক্ষণ এরা টিকে থাকে।কোনো এলাকায় খাদ্য শস্য শেষ হয়ে গেলে নিজেদের মঝে যোগাযোগ করে অতি দূত সেই এলাকা ত্যাগ করে।

 পঙ্গপাল এর ক্ষতি ঠেকানোর উপায়।

পঙ্গপালের ক্ষতি ঠেকাতে এখনো কোনো কার্যকরি পদ্ধতি আবিষ্কার হয়নি।হেলিকপ্টার থেকে কীটনাশক ছিটিয়েও এদের ধ্বংস করা যায় না কারন হেলিকপ্টার থেকে কীটনাশক ছিটিয়ে দিলে মানুষ ও অন্যান্য উপকারী কীটপতঙ্গের ক্ষতি হয়।চীন থেকে পাকিস্তানে এক লাখ হাঁস পাটিয়েছে এই পঙ্গপালকে খেয়ে দমন করার জন্য। কিন্তু হাঁসকে এখনো কাজে লাগানো হয় নি।একটা হাা একদিনে ২০০ এর বেশি পঙ্গপাল খেয়ে ফেলতে পারে।       

পঙ্গপালের ডিম মাটিতে অনেক দিন টিকে থাকতে পারে।এমনকি ২০ বছর পরেও মাটিতে পড়ে থাকা ডিম ফুটে বাচ্ছা বের হতে পারে।বাচ্ছা পঙ্গপাল উড়তে পারেবনা।অল্প বয়সে এরা লাপিয়ে চলাফেরা করে।এই পতঙ্গর বাচ্ছা পূর্ণ বয়স্ক হতে প্রায় ৪ সপ্তাহ সময় লাগে।পূর্ণ বয়স্ক পঙ্গপালের শারিরীক গঠন খুব দূরত বৃদ্ধি পেতে থাকে।একটি পূর্ণ বয়স্ক পঙ্গপাল নিজের ওজন পরিমান খাবার গ্রহণ করে থাকে।আর পঙ্গপালের একটি ঝাক এক দিনে হাজার হাজার টন খাদ্য খেয়ে ফেলতে পারে।

এইসব পোকা প্রতিনিয়ত দলবেঁধে সামনের দিকে এগিয়ে যেতে থাকে।যাতায়াতের সময় পঙ্গপাল নিজের শক্তি সঞ্চয় করে বাতাসের উপর ভর করে চলে। বাতাসে গতিপথ অনুসরণ করে চলার কারণে বাতাস যেই দিকে যায় সেই দিকেই আক্রমণ করে।


Post a Comment

2 Comments

  1. Hello I am so delighted I located your blog, I really located you by mistake, while I was watching on google for something else, Anyways I am here now and could just like to say thank for a tremendous post and a all round entertaining website. Please do keep up the great work. E-commerce site

    ReplyDelete
  2. Only aspire to mention ones content can be as incredible. This clarity with your post is superb and that i may think you’re a guru for this issue. High-quality along with your concur permit me to to seize your current give to keep modified by using approaching blog post. Thanks a lot hundreds of along with you should go on the pleasurable get the job done. Gobd

    ReplyDelete

Thanks.

Search This Blog